Earning Tips From Online


অনলাইনে ইনকামের জন্য 7 টি কার্যকর উপায়

Blogging : অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার সব চেয়ে ভাল একটি মাধ্যম হচ্ছে ব্ল

অনলাইনে ইনকামের জন্য 7 টি কার্যকর উপায়

Blogging : অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার সব চেয়ে ভাল একটি মাধ্যম হচ্ছে ব্লগিং। ব্লগিং করে আপনারা প্রতি মাসে খুব ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারবেন কোন রকমের ঝামেলা ছাড়া। বর্তমান যুগকে বলা হয় তথ্য প্রযুক্তি বা ইন্টারনেটের যুগ। তাই ব্লগিং সম্পর্কে জানেনা এমন মানুষ খুব কম পাওয়া যায়। বর্তমানে ইন্টারনেটের যুগে ব্লগিং খুব পরিচিত একটি কাজ। বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার মানুষ এই কাজের সাথে জড়িত। যে কোন কিছুর উপর এই চাইলে ব্লগিং করা যেতে পারে। আর তার জন্য আপনার প্রয়োজন একটি নিস বা সাবজেক্ট বাছাই করা। ব্লগিং করতে হলে প্রথমেই আপনাকে জেনে নিতে হবে ডোমেইন এবং হোস্টিং সম্পর্কে। ডোমেইন এবং হোস্টিং ছাড়া ব্লগিং শুরু করা যাবে না।তারপর আপনার জানতে হবে কোন নিস নিয়ে কাজ করবেন দেশি অথবা বিদেশি। আপনাদের যদি কোন বিদেশী কনটেন্ট নিয়ে কাজ করেন সে ক্ষেত্রে প্রতিমাসে 500 থেকে 10 হাজার ডলার পর্যন্ত ইনকাম করা সম্ভওর। আর যদি বাংলাদেশকে নিয়ে কাজ করেন সে ক্ষেত্রে প্রতি মাসে 100 থেকে 2000 ডলার পর্যন্ত ইনকাম করা সম্ভব। অনেক ব্লগার আছে যারা দেশে থেকে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট নিয়ে কাজ করে 5 থেকে 25 হাজার ডলার পর্যন্ত ইনকাম করে থাকে।


7 Effective Way to get Money from Online

তাই আপনি যদি ব্লগিং কে ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে চান এবং প্রতিমাসে ভালো ইনকাম করতে চান তাহলে একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনে ব্লগিং শুরু করে দিতে পারেন। এটা করার জন্য অন্যান্য যত সাহায্য প্রয়োজন সেগুলো আপনারা বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং ইউটিউব ভিডিও থেকে পেয়ে যাবেন।

পাশাপাশি আরো ধারণা পেতে হলে আপনাকে বিভিন্ন রিসার্চ করতে হবে। বড় বড় ওয়েবসাইটগুলো ঘাটাঘাটি করতে হবে। তাদের কনটেন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে।



Youtube: কোন কিছু দেখার জন্য দুনিয়ার সব থেকে বড় প্লাটফর্ম বলা যেতে পারে ইউটিউব কে এখানে সব ধরনের ভিডিও পাওয়া যায়। ছোট কিংবা বড় সবার কাছেই একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব ভিডিও দেখার জন্য। আর তাই বর্তমানে ইন্টারনেটের যুগে ভিডিও প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে ইউটিউব সব থেকে বেশি জনপ্রিয়। প্রতিদিন 200 কোটির বেশি মানুষ ইউটিউব এ ভিডিও দেখার জন্য আসে। সে ক্ষেত্রে আপনি যদি ইউটিউব এ কাজ করেন তাহলে আপনি খুব ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমত একটি চ্যানেল খুলতে হবে। চ্যানেল খোলার জন্য আপনার একটি জিমেইল থাকতে হবে। বাংলাদেশ ইউটিউব থেকে ইনকাম করা একটি জনপ্রিয় পেশা হয়ে উঠেছে | আপনার হাতে একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন বা কম্পিউটার থাকলেই আপনি সেটির সাহায্যে ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার ইন্টারনেট সংযোগ থাকা লাগবে।


7 Effective Way to get Money from Online

প্রতিমাসে ইউটিউব থেকে 200- 2000 ডলার ইনকাম করা যায় যদি আপনি দেশী কনটেন্ট নিয়ে কাজ করেন। ভিডিও বানানো সম্পর্কে আপনার যদি ভালো ধারণা থাকে তাহলে আপনি ইউটিউব থেকে প্রতি মাসে প্রচুর ইনকাম করতে পারবেন।কিন্তু আপনাকে মাথায় রাখতে হবে ইউটিউব এ কিছু নিয়ম নীতি মালা। যে আপনি অমান্য করলে ইউটিউব কর্তৃক আপনাকে অথবা আপনার চ্যানেলকে ব্যান করে দিতে পারে। ব্লগিং এর মত আপনাকে ইউটিউবে একটি নির্দিষ্ট সাবজেক্ট অথবা নিস বাছাই করতে হবে। আপনার কনটেন্ট যদি ইউনিক হয় তাহলে ইউ টিভি সব থেকে বড় প্লাটফর্ম হবে আপনার লাইফকে চেঞ্জ করার জন্য। ইউটিউবিং করার জন্য আপনার হতে হবে যথেষ্ট ধৈর্যশীল ও সৃজনশীল। তাই দেরি না চাইলে আজ থেকে আপনার কাজ শুরু করে দিতে পারেন আপনার আগামী ভবিষ্যতের জন্য। ইংরেজীতে একটি প্রবাদ আছে:

Time and tide, wait for none.

Android Apps : বর্তমান যুগে মানুষের হাতে হাতে মোবাইল ফোন। যুগের পরিবর্তন ধারায় এখন সবার হাতেই স্মার্টফোন বা এন্ড্রয়েড ফোন আছে। সেক্ষেত্রে আপনি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানিয়ে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন| বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস এর চাহিদা অনেক ।এখন মানুষের দৈনন্দিন কাজ সম্পন্ন করার জন্য কিছু কিছু অ্যাপস ব্যবহার হয়ে থাকে, সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর , বিভিন্ন গেমস , বিভিন্ন টিপস , কিছু তৈরি করার ফর্মুলা ,আরো অনেক কিছু। প্রতিদিন মানুষ নতুন নতুন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস তৈরি করছে । তাই আপনি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারেন। অবশ্যই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানিয়ে সেটিকে প্লে স্টোরে আপলোড করতে হবে। এর জন্য আপনার একটি প্লে স্টোর একাউন্ট থাকতে হবে। ব্লগিং এবং ইউটিউব অপেক্ষায় অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানিয়ে খুব কম সময়ে অনেক টাকা ইনকাম করা যায়। অনলাইন ইনকাম এর মধ্যে এটি হচ্ছে একটি সহজ রাস্তা।

বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া এবং পাকিস্তান সহ বিশ্বের অনেক দেশের অ্যাপস ডেভেলপাররা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানিয়ে সেটাকে প্লে স্টোরে আপলোড করে প্রতিমাসে অনেক টাকা ইনকাম করছে। তাই আপনিও অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ডেভেলপিং শিখে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন । তাছাড়া বিশ্বের অনেক নামিদামি প্রতিষ্ঠানের অ্যাপস অনলাইনে পাওয়া যায়। দৈনন্দিন জীবনকে সহজতর করতে অ্যাপস গুলো ব্যবহার করা হয় । আপনি সরকারি অথবা বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে থেকে অল্প সময়ের মধ্যে যেকোনো কোর্সের মাধ্যমে শিখে নিতে পারেন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ডেভলপিং। আর সেক্ষেত্রে আপনার যদি সৃজনশীলতা খুব ভালো থাকে আপনি নিজে তৈরি করতে পারেন উপকারী কিছু অ্যাপস ।



Graphics Design: আপনার যদি ছোটবেলা থেকে আঁকাআঁকি করার দক্ষতা থেকে থাকে তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন আপনার জন্য ভালো একটি প্ল্যাটফর্ম। বর্তমান সময়ে গ্রাফিক ডিজাইন সব থেকে বড় একটি প্লাটফর্ম নিজের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে নতুন কিছু তৈরি করা। সবাই চায় তার নিজস্ব ওয়েবসাইট হোক কিংবা অন্য কোন প্রতিষ্ঠান একটি ইউনিক লোগো হবে । আর তাই সেটার পেছনে যথেষ্ট সময় এবং টাকা ব্যয় করা হয়। কারণ তার লোগো হয় তার ব্র্যান্ডের পরিচয় । তাই আপনি লোগো ডিজাইন, ব্যানার ডিজাইন, কার্ড ডিজাইন ইত্যাদির মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।


7 Effective Way to get Money from Online

আমাদের দেশে বেশির ভাগ মানুষ অনলাইনে এই পেশাকে খুব পছন্দ করো। গ্রাফিক্স ডিজাইনার দক্ষ হলে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস যেমন ফাইবার ,আপ–ওয়ার্ক এবং পিপল পার আওয়ার থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন। তাছাড়া আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন এ দক্ষ হন তাহলে সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এ ডিজাইনিং পদে চাকরি পেতে পারেন । তাছাড়া অনলাইনের মাধ্যমেও আপনি অন্য প্রতিষ্ঠান এর জন্য ডিজাইনিং সংক্রান্ত কাজ করে প্রতিমাসে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বাংলাদেশের বেকার সমস্যা সমাধানের জন্য সরকারি ও বেসরকারিভাবে অনেককে বিনামূল্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখানো হচ্ছে| আপনারা সেখান থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে অনলাইনে মার্কেটপ্লেসে লোগো ডিজাইন, ব্যানার ডিজাইন, পোস্টার ডিজাইন এবং কার্ড ডিজাইন করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে যদি আপনি অন্তর থেকে একটু দক্ষতার মাধ্যমে নিজের কাজ সম্পন্ন করতে পারেন তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন হতে পারে আপনার সবচেয়ে বড় বন্ধু। এর মাধ্যমে আপনি যেমন কাজ করতে পারবেন এবং অন্যদের ও সাবলম্বী করে তুলতে পারবেন। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এর অনেক চাহিদা রয়েছে।

Video Editing :জনপ্রিয় একটি মাধ্যম ইনকাম করার।যেকোনো কিছু তৈরি করার ক্ষেত্রেই ভিডিও এডিটিং এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। কেননা একটা জিনিস ফুটিয়ে তুলতে অনেকগুলো কাজ করতে হয় । ভিডিও এডিটিং এর ক্ষেত্রে এই কাজগুলো অনেকাংশে বেড়ে যায় । নাটক কিংবা মুভি সকল ক্ষেত্রেই এডিটিং এর প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশী । দর্শক চাই মনমুগ্ধকর দৃশ্য এই দৃশ্যগুলো তৈরি করতে পুরো ভিডিওটা খুব ভালোভাবে এডিটিং করতে হয় । এখনকার দিনে তাই ভিডিও এডিটিং খুব জনপ্রিয় একটি কর্মক্ষেত্র হয়ে গেছে। আপনি এই সেক্টরে যত বেশি কাজ করবেন আপনার দক্ষতা তত পরিমান বাড়তে থাকবে। আবার বাজারে এর চাহিদা ও কোন অংশে কম নয়। সর্বোপরি বলা যায় ভিডিও এডিটিং খুব ভালো একটি মাধ্যম কর্মসংস্থান করার জন্য অথবা অনলাইনে বা অফলাইনে দুটো ক্ষেত্রেই ইনকাম করার জন্য।


7 Effective Way to get Money from Online

SEO : জনপ্রিয় কাজ গুলোর মধ্যে এসির অবস্থান খুব ভালো জায়গা থাকলেও অনেকেই এটা সম্পর্কে বিস্তারিত জানেনা। যারা অনলাইনে কাজ করে তাদের মধ্যে অনেকেই এই কাজ শিখতে আগ্রহী হয় না। তারা এটাকে ঝামেলা মনে করে। আর আর এই কাজ অন্যের মাধ্যমে করিয়ে নেয়। কিন্তু অনলাইনে অন্যান্য জনপ্রিয় কাজের মধ্যে একটি হচ্ছে এসইও । এসইও এর পুরো অর্থ হল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। বিভিন্ন ওয়েবসাইট, ভিডিও, কিওয়ার্ড, আর্টিকেল গুগলের প্রথম পেজে আনার জন্য যে পন্থা অবলম্বন করা হয় সেটাই হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।


7 Effective Way to get Money from Online

আমরা অনলাইনে যদি কোন ভিডিও ছাড়ি বা কোন আর্টিকেল পাবলিশ করি তাহলে আমাদের লক্ষ্য থাকে সেটাকে কিভাবে র‍্যাংক করানো যায় অর্থাৎ আমরা যদি কোন ওয়েবসাইট বানাই তাহলে আমাদের লক্ষ্য থাকে ওয়েবসাইট টা কিভাবে গুগলে প্রথম পেজে আনা যায়। এবং আমাদের ওয়েবসাইট টা যাতে গুগলে সার্চ করলে সবার প্রথমে আসে। এই কাজটি একমাত্র এসইও এর মাধ্যমে সম্ভব। সে ক্ষেত্রে আপনি যদি এসইও এক্সপার্ট হন তাহলে আপনি নিজের ওয়েবসাইট বানিয়ে সেটাকে গুগলে র‍্যাংক করিয়ে ইনকাম করতে পারবেন অথবা বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে অন্যের ওয়েবসাইটে কাজ করে, তার সাইট র‍্যাংক করিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এ সেক্টরে আপনি প্রতি মাসে 300 থেকে 3000 ডলার ইনকাম করতে পারবে। অনলাইনে এই কাজের চাহিদা অনেক বেশি। আগেই বলেছি অনেক মানুষ আছে যারা নিজের ওয়েবসাইটকে গুগলের র‍্যাংক করাতে চান । কিন্তু তারা এসইও না জানায় সেটা সম্ভব করতে পারেনা। সে ক্ষেত্রে আপনি যদি এসইও তে দক্ষ হন তাহলে আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাছাড়া নিজেও একটি ডোমেইন হোস্টিং কিনে সাইটকে র‍্যাংক করিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

Facebook Instant Article : বর্তমান সময়ে সবার হাতেই একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল রয়েছে। ছোট-বড় সবাই ফেসবুক ব্যবহার করে. ফেসবুক সম্পর্কে জানে না এমন মানুষ খুবই দুর্লভ।কমবেশি সবার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আছে। সম্প্রতি ফেসবুকে ইনকাম সম্পর্কিত অনেক তথ্যই ও পথ আপনারা জানেন। ফেসবুক পেজের মাধ্যমে অনেকেই ইনকাম করছে। ব্লগিং এর মত ফেসবুক এখন বিভিন্ন পোস্টে অ্যাড সার্ভিস চালু করেছে।


7 Effective Way to get Money from Online

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনাদের ইনকাম করতে হলে আপনাদের একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে এবং পেজে প্রায় 10000 লাইক এবং ফলোয়ার থাকতে হবে। তাহলে আপনারা এই পেজ টি দিয়ে অনলাইনে ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন। অপর একটি মাধ্যম হচ্ছে ফেসবুক ভিডিও পাবলিশ করা। ফেসবুক পেজে আপনারা ভিডিও আপলোড অথবা পাবলিশ করেও ইনকাম করা যায় যা ইতিমধ্যে অনেকেই করছে। ইউটিউব অপেক্ষায় ফেসবুকে মনিটাইজেশন চালু করা বা পাওয়া খুবই সহজ। তাছাড়া ঠিকমতো কাজ করলে ইউটিউব অপেক্ষায় ফেসবুকে ইনকাম অনেক বেশি হয়। তাই আপনারা যারা ফেসবুকে অনেক বাড়তি সময় নষ্ট করেন তারা সেই সময়টাকে খবু সহজে কাজে লাগিয়ে একটি ফেসবুক পেজ দাড়া করাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনারা এই পেজের মাধ্যমে খুব ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বাংলাদেশের অনেক যুবক–যুবতীরা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে প্রতি মাসে ৪০০ থেকে ৮০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করছে। তাই আপনারা যারা মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন ভিডিও ধারণ করেন হাসি ঠাট্টা মূলক আবার কোন ভাইরাল টপিক সেই ভিডিও গুলো আপনার পেজে আপলোড করে সেই পেজের মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন খুব সহজেই।

সারসংক্ষেপ : সর্বোপরি বলতে চাই যে উপরে অনলাইনে ইনকামের যে সাতটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে সেই 7 টি সেক্টরের যেকোনো একটি সেক্টর আপনি বাছাই করে ইতিমধ্যে কাজ শুরু করতে পারেন| এক্ষেত্রে আপনার থাকতে হবে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস ও মনোবল। মনে রাখবেন প্রতিটি সেক্টরে আপনি যদি ঠিকমতো সময় দিয়ে ধৈর্য ধারণ করে নিয়মিত কাজ করেন তাহলে আপনি সাফল্য অর্জন করতে পারবেনএবং আপনাকে পিছন ফিরে তাকাতে হবে না| আর ইনকামের কথায় যদি আসি তাহলে প্রতিটি সেক্টর থেকেই আপনি অনেক অনেক বেশি টাকা উপার্জন করতে পারবেন|যদি ওই বিষয়ের উপর আপনি খুব পারদর্শিতা অর্জন করতে পারেন। বৈধভাবে যেই সেক্টরে কাজ করবেন সেই সেক্টরের সমস্ত নিয়ম কানুন এবং নীতি অবলম্বন করে কাজ করবেন তাহলে কখনো কোন সমস্যা হবে না এবং প্রতিমাসেই আপনি ভালো ফলাফল পাবেন এবং নিজের উপর আত্মবিশ্বাস কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।



আশা করি সবাই ভাল থাকবেন। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ